• রোববার   ২৫ জুলাই ২০২১ ||

  • শ্রাবণ ১০ ১৪২৮

  • || ১৪ জ্বিলহজ্জ ১৪৪২

দৈনিক খাগড়াছড়ি

খাগড়াছড়িতে বাড়ছে করোনা, বাড়ছে রোগী

দৈনিক খাগড়াছড়ি

প্রকাশিত: ৭ জুলাই ২০২১  

খাগড়াছড়িতে বাড়ছে করোনা রোগী। বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। মানুষের উদাসীনতার কারণে পাহাড়ি এই অঞ্চলে প্রতিদিন-ই আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েই চলেছে বলে জানিয়েছেন ভুক্তভোগীরা। 
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, খাগড়াছড়িতে ২৪ ঘণ্টার ব্যবধানে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আরও একজনের মৃত্যু হয়েছে। একই সময়ে জেলায় নতুন করে আরও ৪৩ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়।

বুধবার (০৭ জুলাই) সকাল ১০টার দিকে খাগড়াছড়ির মাটিরাঙ্গার ভুইয়াপাড়ার নিজ বাড়িতে মারা যান করোনায় আক্রান্ত জামিনা খাতুন (৮০)। এ নিয়ে জেলায় মোট ১০ জন করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেলেন। করোনার উপসর্গ নিয়ে মৃত্যু হয়েছে ৩৯ জনের।

মৃত জামিনা খাতুন মাটিরাঙ্গা পৌরসভার ৮নং ওয়ার্ডের ভুইয়াপাড়া এলাকার মৃত নুর মিয়া সর্দারের স্ত্রী। যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মেনে স্থানীয় কবরস্থানে ওই বৃদ্ধার দাফনের উদ্যোগ নিয়েছে মাটিরাঙ্গা উপজেলা প্রশাসন।

গত ২৪ ঘণ্টায় জেলায় নতুন করে আরও ৪৩ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে। এই নিয়ে চলতি মাসে মোট ২৪৯ জনের করোনা শনাক্ত হলো। সব মিলিয়ে শনাক্তের সংখ্যা ১ হাজার ৪০৯ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় ৯৭ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ৪৩ জনের করোনা শনাক্ত হয়। শনাক্তের হার ৪৪.৩৩ শতাংশ। নতুন আক্রান্তদের মধ্যে খাগড়াছড়ি সদরে ১৭ জন, মাটিরাঙ্গায় ১৭ জন, মানিকছড়িতে ২ জন, পানছড়িতে ২ জন এবং দিঘীনালায় ৫ জন রয়েছেন।
এদিকে খাগড়াছড়িতে বাড়ছে করোনার প্রকোপ। প্রতিদিনই বাড়ছে রোগী ও শনাক্তের হার। হাসপাতালের করোনা ওয়ার্ডে ভর্তি রয়েছে ৩৫ রোগী। আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসা দিতে হিমশিম খাচ্ছেন চিকিৎসক ও নার্স। এছাড়া দীর্ঘদিন ধরে খাগড়াছড়িতে চিকিৎসক সংকট থাকায় স্বাভাবিক সেবা কার্যক্রম ব্যাহত হচ্ছে।

পরিস্থিতি বিবেচনায় কোভিড সুষ্ঠুভাবে মোকাবিলা ও জনসেবা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে একযোগে ১৮ চিকিৎসককে খাগড়াছড়িতে পদায়ন করেছে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়। সোমবার বিকালে অধিদপ্তরের উপসচিব জাকিয়া পারভীন স্বাক্ষরিত এই আদেশ জারি করা হয়। চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ থেকে এসব চিকিৎসককে খাগড়াছড়ি জেলা হাসপাতালে বদলি করা হয়। এদিকে প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, ‘পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত এসব চিকিৎসক করোনা ইউনিটে দায়িত্ব পালন করবে।’ আজ বৃহস্পতিবারের মধ্যে চিকিৎসকদের নতুন কর্মস্থলে যোগ দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

নতুন ১৮ চিকিৎসক পাওয়ায় খুশি স্থানীয় বাসিন্দারা। এই নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন তারা। খাগড়াছড়ির ঠিকাদার চন্দন কুমার দে ও সমাজকর্মী লিটন ভট্টাচার্য রানা লিখেছেন, ‘দীর্ঘদিন খাগড়াছড়িতে চিকিৎসক সংকট ছিল। ১৮ চিকিৎসককে পদায়ন করায় জেলার মানুষ খুশি।’

খাগড়াছড়ি সিভিল সার্জন নুপুর কান্তি দাশ বলেন, ‘জেলায় চিকিৎসক সংকট ছিল। খাগড়াছড়ি জেলা হাসপাতালে নতুন করে ১৮ চিকিৎসককে পদায়ন করায় স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত হবে। এতে করোনা আক্রান্তদের চিকিৎসাসেবা নিশ্চিত হবে।

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখে পাঠাতে পারেন আমাদের। এছাড়া যেকোনো সংবাদ বা অভিযোগ লিখে পাঠান এই ইমেইলেঃ [email protected]