• শনিবার   ২৪ অক্টোবর ২০২০ ||

  • কার্তিক ৯ ১৪২৭

  • || ০৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

দৈনিক খাগড়াছড়ি
স্বাধীনতা অর্জনের প্রথম ধাপ

স্বাধীনতা অর্জনের প্রথম ধাপ

০৬:৩৫ পিএম, ৫ জুন ২০২০ শুক্রবার

সাঈদীকে সারাজীবন ঘৃণা করবে মানুষ
খুন-ধর্ষণ-হত্যা

সাঈদীকে সারাজীবন ঘৃণা করবে মানুষ

অপরাধের শেষ নেই। খুন-ধর্ষণ-হত্যা। বলে শেষ করা যাবে না। ১৯৭১ এ ছিলেন দেশের বিরোধিতায়। ২ মে জামায়াত নেতা সাঈদী মুক্তি পাচ্ছেন-কুচক্র মহলের এমন গুজবে আবারো সামনে চলে এসেছে তার নানান অপরাধগুলো। একাত্তরের অপরাধ ঢেকে নতুন পরিচিতি পেতে তিনি দাখিল পাসের সনদপত্র জালিয়াতি করেছেন বলে অভিযোগ রয়েছে।

০৪:৪০ পিএম, ২ মে ২০২০ শনিবার

দুর্নীতিবাজদের বিরুদ্ধে কঠোর হচ্ছেন শেখ হাসিনা
করোনাভাইরাস:

দুর্নীতিবাজদের বিরুদ্ধে কঠোর হচ্ছেন শেখ হাসিনা

করোনাভাইরামের এই দুর্যোগে যারা ত্রাণ নিয়ে ছিনিমিনি খেলছেন তাদের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থান নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি হুশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেছেন, যারা সাধারণ-গরীব মানুষের হক নিয়ে লুটপাটে জড়িয়ে পড়েছে তাদের কঠিন শাস্তি দেওয়া হবে।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হুশিয়ারির পরপরই দুর্নীতিবাজরা একের পর এক ধরা পড়তে শুরু করেছে। সরকারি ত্রাণ অনেকে বাড়িতে রাখতে না পেরে শেষ পর্যন্ত মানুষের ভেতর বিলিয়ে দিতে বাধ্য হচ্ছে। দেশের সাধারণ মানুষ থেকে শুরু করে দেশসেরা ক্রিকেটার, রাজনীতিবিদ, ব্যবসায়ী ও টিভি তারকারা শেখ হাসিনার পাশে এসে দাঁড়িয়েছেন।

০৩:৪১ পিএম, ২৯ এপ্রিল ২০২০ বুধবার

শুনুন দুই বাঙালিকন্যা সুমি ও  চন্দ্রার গল্প
করোনাভাইরাসের ঔষধ:

শুনুন দুই বাঙালিকন্যা সুমি ও চন্দ্রার গল্প

এখন পর্যন্ত করোনাভাইরাসের ঔষধ কিংবা টিকা কোনটিই আবিস্কার হয়নি। কিন্তু দিনরাত চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন বিশ্বের সব বিজ্ঞানীরা। তবে বিশ্ব মিডিয়ায় এখন গবেষকদের তালিকায় বাংলাদেশের দুই বাঙালিকণ্যা। ভাবা যায়! সবার নজর এখন সেদিকেই। অক্সফোর্ডে যে দলটি কাজ করছে করোনার টিকা নিয়ে, সেখানেই কৃতিত্বের উজ্জ্বল স্বাক্ষর রেখে চলেছেন দুই বাঙালিকন্যা-সুমি বিশ্বাস এবং চন্দ্রা দত্ত।

০৩:১৯ পিএম, ২৯ এপ্রিল ২০২০ বুধবার

প্রাথমিক শিক্ষকের প্রাণও মূল্যবান
সম্পাদকীয়

প্রাথমিক শিক্ষকের প্রাণও মূল্যবান

এটা ঠিক যে, করোনাভাইরাস পরিস্থিতি আমাদের এক অভূতপূর্ব বাস্তবতার মুখোমুখি দাঁড় করিয়ে দিয়েছে; কিন্তু তাই বলে বিবেচনাবোধ বিস্মৃত হওয়ার অবকাশ নেই। দুর্ভাগ্যবশত দেশের প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের ওপর চাপিয়ে দেওয়া দুটি সিদ্ধান্ত আমাদের কাছে অবিবেচনাপ্রসূতই মনে হচ্ছে। একদিকে অসচ্ছল ও সুবিধাবঞ্চিত শিক্ষার্থীদের তথ্য সংগ্রহের দায়িত্ব দিয়ে তাদের করোনাভাইরাস সংক্রমণের ঝুঁকিতে ফেলা হয়েছে, অন্যদিকে তাদের কাছ থেকে আদায় করা হচ্ছে অযৌক্তিক অর্থ। আমরা মনে করি, এতে করে পরিস্থিতি আরও জটিল হয়ে পড়তে পারে।
করোনাভাইরাস পরিস্থিতি মোকাবিলায় যে সর্বাত্মক লড়াই দেশজুড়ে চলছে, তাতে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তিন লাখের বেশি শিক্ষকও নিশ্চয়ই যোগ দেবেন। বস্তুত 'লকডাউন' পরিস্থিতিতেও ব্যক্তিগত পরিসরে সবাই সাধ্যমতো দরিদ্র ও সুবিধাবঞ্চিত মানুষের সহায়তায় এগিয়ে আসছেন, আমরা দেখেছি। প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকরা সামষ্টিক উদ্যোগেও হয়েছেন শামিল। তাদের বৈশাখী ভাতা থেকে একটি অংশ ইতোমধ্যে প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে দেওয়া হয়েছে। এরপরও কথিত 'স্থানীয় তহবিল' গঠনের নামে সারাদেশের প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের কাছ থেকে ৫০০ থেকে এক হাজার টাকা আদায়ের উদ্দেশ্য ও যৌক্তিকতা কী?
বুধবার সমকালে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে দেখা যাচ্ছে, বিভাগীয় উপ-পরিচালকের 'টেলিফোনিক নির্দেশ' উলেল্গখ করে জেলা শিক্ষা কর্মকর্তারা উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তাদের কাছে যে চিঠি পাঠিয়েছেন, তার ভিত্তিতেই এই অর্থ আদায় করা হচ্ছে। আমাদের প্রশ্ন, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় বা জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা বা পরিপত্র ছাড়া জেলা বা উপজেলা প্রশাসন যে কোনো পর্যায়ের সরকারি কর্মকর্তা বা কর্মচারীর কাছ থেকে এভাবে অর্থ আদায় করতে পারে? কোথাও কোথাও এক দিনের বেতন কেটে নেওয়ার যে খবর পাওয়া গেছে, তা আরও অগ্রহণযোগ্য। রীতিমতো পিয়ন পাঠিয়ে শিক্ষকদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে অর্থ আদায় আমাদের কাছে চাঁদাবাজিরই নামান্তর। আমরা দেখতে চাই, অবিলম্বে এভাবে অর্থ আদায় বন্ধ করা হয়েছে।
নিছক ফোনের সূত্র ধরে অর্থ আদায়ের নির্দেশনা যারা দিয়েছেন, তাদেরও জবাবদিহির বিকল্প নেই। জেলা শিক্ষা কর্মকর্তার জারি করা চিঠির পাঁচ নম্বর কলামে উলিল্গখিত 'প্রয়োজনে সহায়তা' করার নির্দেশ কীভাবে অর্থ প্রদানে রূপান্তরিত হলো, খতিয়ে দেখতে হবে সেটাও। কোনো কোনো উপজেলায় শিক্ষা কর্মকর্তা ছাড়াও উপজেলা চেয়ারম্যান ও নির্বাহী কর্মকর্তা মিলে যেভাবে অর্থ আদায়ের হার ও ব্যয়ের খাত নির্ধারণ করেছেন, তা কোন আইনের বলে- আমরা জানতে চাই। রাষ্ট্রীয় ক্ষেত্রে এভাবে ব্যক্তি বা গোষ্ঠীবিশেষের খামখেয়ালি চলতে পারে না।
একজনের খামখেয়ালিপনা কীভাবে আরেকজনের জীবন-মৃত্যুর প্রশ্ন হয়ে দাঁড়াতে পারে, ঈশপের 'বালক ও ভেক' গল্পে আমরা দেখেছি। ভাইরাসকবলিত এই সময়ে পিপিই বা ব্যক্তিগত সুরক্ষাসামগ্রীর নূ্যনতম ব্যবস্থা না করে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে তথ্য সংগ্রহের দায়িত্ব যেন তারই 'আধুনিক' সংস্করণ। দেশের এই দুঃসময়ে শিক্ষার্থীদের বাড়িতে গিয়ে তার পরিবারের পরিস্থিতি নিশ্চয়ই জানতে পারেন। বস্তুত আমাদের দেশে খানা জরিপ কিংবা ভোটার তালিকা হালনাগাদের কাজ বহুলাংশে এই শিক্ষকরাই সম্পন্ন করে থাকেন। কিন্তু তাদের পিপিই না দিয়ে এমন দায়িত্ব দেওয়া জেনেশুনে বিপদে ঠেলে দেওয়া ছাড়া কী হতে পারে? তাদের একজনও যদি করোনা আক্রান্ত হয়, সেই দায় কে নেবে? মনে রাখতে হবে, প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের বড় অংশ নারী। লকডাউন পরিস্থিতিতে তাদের পক্ষে যাতায়াতও সহজ নয়। এ ক্ষেত্রে ফোনে তথ্য সংগ্রহ করা যেতে পারে বৈকি; কিন্তু সেই নির্দেশনা আসতে হবে যথাযথ প্রক্রিয়ায়।
করোনাকালে যখন দায়িত্ব পালনকারী বিভিন্ন পেশাজীবীর ব্যক্তিগত সুরক্ষাসামগ্রী নিশ্চিত করার দাবি উঠছে; তখন প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকরা নিয়তির ওপর ভরসা করে ঘর থেকে বের হতে পারেন না। করোনাকালে দায়িত্ব পালনকারী অন্যান্য পেশাজীবী যেখানে প্রণোদনা বা বীমা সুবিধা পাচ্ছেন; তখন প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের ওপর বাড়তি চাঁদার দায় চাপবে কেন? ভুলে যাওয়া চলবে না যে, দেশের প্রত্যেক নাগরিকের মতো প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের প্রাণও মূল্যবান, তাদেরও অধিকার রয়েছে নিজের প্রাপ্য অর্থ নিজের সিদ্ধান্তে ব্যয় করার। শিক্ষার্থীদের ত্রাণ নিশ্চিত করতে গিয়ে শিক্ষকদের মধ্যে ত্রাস সৃষ্টি আর যাই হোক, দূরদর্শী সিদ্ধান্ত হতে পারে না। করোনাভাইরাস মোকাবিলায় আমরা সবাই নিশ্চয়ই সাধ্যমতো সক্রিয় থাকব; একই সঙ্গে সাবধানতারও বিকল্প নেই।

০১:৫০ পিএম, ২৩ এপ্রিল ২০২০ বৃহস্পতিবার

প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে ভয়কে জয় করবো ইনশাআল্লাহ

প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে ভয়কে জয় করবো ইনশাআল্লাহ

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মতো একজন সাহসী এবং পরীক্ষীত নেতৃত্ব আছে বলেই বাংলাদেশ অনেক সংকট ও দুর্যোগ মোকাবেলায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছেন। তিনি দৃঢ কণ্ঠে বলেন, প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে ভয়কে জয় করবো ইনশাআল্লাহ।

বৃহস্পতিবার (২৩ এপ্রিল) সকালে ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে দলটির ত্রাণ উপকমিটির উদ্যোগে অসহায় গরীব মানুষের মাঝে প্রতিনিধির মাধ্যমে খাদ্য সামগ্রী বিতরণের আগে তাঁর বাসা থেকে সংযুক্ত হয়ে ভিডিও কানফারেন্সে এসব বলেন।

এই সংকটকালে যারা কষ্টে আছেন তাদের এই প্রয়াস অব্যাহত রাখার আহবান জানিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন সারা বাংলাদেশে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়াতে হবে। তিনি বলেন, যারা কর্মহারিয়ে দিশেহারা মুখে বলতে পারেনা, তাদের খুঁজে খুঁজে বাড়ী গিয়ে ত্রাণ দিতে হবে।

 

০১:৪৮ পিএম, ২৩ এপ্রিল ২০২০ বৃহস্পতিবার

ডা. মঈনের বিরুদ্ধে ফেসবুকে কুৎসা রটনার অভিযোগে যুবক গ্রেফতার

ডা. মঈনের বিরুদ্ধে ফেসবুকে কুৎসা রটনার অভিযোগে যুবক গ্রেফতার

করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়া ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সহকারী অধ্যাপক ডা. মঈন উদ্দিন বিরুদ্ধে ফেসবুকে কুৎসা রটনার অভিযোগে রিয়াজুল আবির (৩১) নামে এক যুবককে গ্রেফতার করেছে সাইবার পুলিশ (সিআইডি)।

বুধবার রাজধানীর বাড্ডা এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

এছাড়া সাইবার পুলিশের ২৪/৭ অনলাইন মনিটরিং সেল ডা. মঈন উদ্দিনসহ চিকিৎসক সমাজের বিরুদ্ধে বিদ্বেষ ছড়ানো বিভিন্ন পোস্ট শনাক্ত করে। তারই ধারাবাহিকতায় সাইবার পুলিশের একটি বিশেষ টিম রাজধানীর বাড্ডা এলাকা থেকে অভিযুক্ত এইচ এম রিয়াজকে গ্রেফতার করে। তার কাছে থেকে একটি মোবাইল সেট জব্দ করা হয়। তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ প্রক্রিয়াধীন আছে।

০১:৪০ পিএম, ২৩ এপ্রিল ২০২০ বৃহস্পতিবার

রাষ্ট্র পরিচালনায় শেখ হাসিনার বিকল্প শেখ হাসিনাই

রাষ্ট্র পরিচালনায় শেখ হাসিনার বিকল্প শেখ হাসিনাই

দীর্ঘ রাজনৈতিক সংগ্রাম ও রাষ্ট্র পরিচালনার অভিজ্ঞতায়ই নয়, দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নের রোল মডেল হওয়ার পাশাপাশি রাষ্ট্রীয় প্রশাসনসহ সব ক্ষেত্রে নিরঙ্কুশ কর্তৃত্ব ও নেতৃত্ব প্রতিষ্ঠার কারণে আজ বাংলাদেশে রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনার বিকল্প কেবল শেখ হাসিনাই। মুক্তিযুদ্ধের উত্তরাধিকারিত্ব বহন করা অসাম্প্রদায়িক গণতান্ত্রিক শক্তির সাংগঠনিক শক্তি ও জনসমর্থননির্ভর নেতৃত্বের বেলায়ও শেখ হাসিনার বিকল্প হিসেবে পর্যবেক্ষকদের দৃষ্টিতে তিনিই অপ্রতিদ্বন্দ্বী। নিজেকে নিজে অতিক্রম করা ছাড়া শেখ হাসিনার বিকল্প সরকারবিরোধী রাজনৈতিক শিবিরেও নেই। ’৭৫ সালের ১৫ আগস্ট কালরাতে মানবসভ্যতার ইতিহাসে সংঘটিত পরিবার-পরিজনসহ জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নৃশংস হত্যাকাণ্ডের পর দীর্ঘ ৩৯ বছরের রাজনৈতিক সংগ্রামের মধ্য দিয়ে শেখ হাসিনাই আজ মুক্তিযুদ্ধের চেতনার বাতিঘর ও তাঁর পিতার সব রাজনৈতিক উত্তরসূরি।

০১:২৭ পিএম, ২৩ এপ্রিল ২০২০ বৃহস্পতিবার

বিএনপি নেতার নেতৃত্বে বাড্ডায় ত্রাণের বিক্ষোভ: ষড়যন্ত্র

বিএনপি নেতার নেতৃত্বে বাড্ডায় ত্রাণের বিক্ষোভ: ষড়যন্ত্র

রাজধানীর বাড্ডায় ত্রাণের দাবিতে করা বিক্ষোভে ষড়যন্ত্রের প্রমাণ পেয়েছে বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থা ও পুলিশ। তাদের দাবি, মানুষ ভাড়া করে ওই বিক্ষোভ করা হয়েছে। পুলিশ জানায়, মূলত সরকারের ভাবমূর্তি নষ্ট করার জন্যই ওই বিক্ষোভের আয়োজন করা হয়। এ ঘটনায় স্থানীয় কাউন্সিলর বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেছেন। গ্রেফতার করা হয়েছে বিক্ষোভের অন্যতম আয়োজক ও বিগত সিটি নির্বাচনে পরাজিত কাউন্সিলর প্রার্থী গোলাম সারোয়ার পিন্টুকে।

০১:১৯ পিএম, ২৩ এপ্রিল ২০২০ বৃহস্পতিবার

রমজানের পণ্যে সয়লাব চট্টগ্রাম বন্দর

রমজানের পণ্যে সয়লাব চট্টগ্রাম বন্দর

রমজানের পণ্যে সয়লাব এখন চট্টগ্রাম বন্দর। করোনা আতঙ্কের মধ্যেও প্রচুর পরিমাণে পণ্য এসেছে এবার। ছোলা, পেঁয়াজ, তেল, চিনি, খেজুরসহ ১৬ লাখ ৮১ হাজার টন পণ্য এসেছে গত মাসে। গত বছরের একই সময়ে যা ছিল ১৫ লাখ ৮৯ হাজার টন। খালাসের অপেক্ষায় এখনও প্রায় পাঁচ লাখ টন ভোগ্যপণ্য বোঝাই ১২টি জাহাজ ভাসছে চট্টগ্রাম বন্দরে। আগামী ২০ দিনে রমজানের পণ্যবোঝাই আরও অন্তত দশটি জাহাজ বন্দরে আসার কথা। পাইপলাইনে থাকা এসব জাহাজের পণ্যও রমজানের মধ্যে খালাস হবে চট্টগ্রাম বন্দরে। সংশ্নিষ্টরা বলছেন, বিপুল পরিমাণে পণ্য আমদানি হওয়ায় এবারের রমজানে ভোগ্যপণ্যের বাজার স্থিতিশীল থাকার কথা। বাজার নিয়ন্ত্রণে রাখতে প্রস্তুতি নিয়েছে ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশও (টিসিবি)। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রমজানে পণ্যমূল্য সহনীয় রাখতে নির্দেশ দিয়েছেন ব্যবসায়ীদের।

০১:০৫ পিএম, ২৩ এপ্রিল ২০২০ বৃহস্পতিবার

চট্টগ্রামে খাবার পেয়ে খুশি ৪০০ হতদরিদ্র পরিবার

চট্টগ্রামে খাবার পেয়ে খুশি ৪০০ হতদরিদ্র পরিবার

চট্টগ্রামে চার শতাধিক হতদরিদ্র পরিবারের মাঝে রান্না করা খাবার বিতরণ করা হয়েছে। করোনাভাইরাসের এমন দুঃসময়ে খাবার পেয়ে খুশি হয়েছেন তারা।

বুধবার নগরের বৌবাজার এলাকায় সামাজিক দূরত্ব মেনে হতদরিদ্র পরিবারের মাঝে রান্না করা খাবার বিতরণ করেন সমাজসেবক ফরিদ মাহমুদ।

 

০১:০১ পিএম, ২৩ এপ্রিল ২০২০ বৃহস্পতিবার

রাঙামাটিতে দুস্থদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে খাদ্য পৌঁছে দিল সেনাবাহিনী

রাঙামাটিতে দুস্থদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে খাদ্য পৌঁছে দিল সেনাবাহিনী

করোনা মোকাবিলায় রাঙামাটিতে মাঠ পর্যায়ে সেনাবাহিনী নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। সাধারণ জনসাধারণকে সচেতন করার পাশাপাশি কর্মহীন, দুস্থ মানুষের বাড়ি বাড়ি গিয়ে গতকাল বুধবার খাদ্য সহায়তা পৌঁছে দিয়েছে সেনাবাহিনী। মানুষকে বাড়িতে অবস্থান করতে উৎসাহিত করার জন্য সেনাবাহিনী তাদের নিজস্ব রেশন থেকে বাঁচিয়ে এসব ত্রাণ সহায়তার উদ্যোগ নিয়েছে।
 

১২:৫৮ পিএম, ২৩ এপ্রিল ২০২০ বৃহস্পতিবার

পুলিশ সদস্যদের চিকিৎসায় ৩ হাসপাতালের ব্যবস্থা

পুলিশ সদস্যদের চিকিৎসায় ৩ হাসপাতালের ব্যবস্থা

পুলিশ মহাপরিদর্শক ড. বেনজীর আহমেদ জানিয়েছেন, করোনাভাইরাসে আক্রান্ত পুলিশ সদস্যদের চিকিৎসার জন্য সাড়ে ছয়শ' বেডের হাসপাতাল প্রস্তুত রয়েছে। পুলিশের নিজস্ব হাসপাতালে শয্যা আছে আড়াইশ'। আর সাড়ে চারশ' বেডের দু'টি হাসপাতাল ভাড়া নেওয়া হয়েছে। ভাড়া করা ওই দুই হাসপাতাল হলো- মহানগর হাসপাতাল ও সিরাজুল ইসলাম হাসপাতাল। এছাড়া পিসিআর ল্যাব বসাচ্ছে পুলিশ। তখন করোনা পরীক্ষার জন্য অন্য কোথাও যেতে হবে না। 

 

১২:৫৫ পিএম, ২৩ এপ্রিল ২০২০ বৃহস্পতিবার

ত্রাণের আওতার বাইরে কেউ নেই: কৃষিমন্ত্রী

ত্রাণের আওতার বাইরে কেউ নেই: কৃষিমন্ত্রী

করোনার এই দুর্যোগময় সময়ে মানবিক সহায়তা এবং ত্রাণের আওতার বাইরে কেউ নেই বলে মন্তব্য করে কৃষিমন্ত্রী ড. মো: আব্দুর রাজ্জাক বলেছেন, সরকার সবার কাছে ত্রাণ পৌঁছে দিতে সাধ্যমত চেষ্টা করছে। পর্যাপ্ত ত্রাণ রয়েছে। পর্যায়ক্রমে সবাই সহায়তা পাবেন। আপনাদেরকে ধৈর্য্য ধরে সরকারকে সহযোগিতা করতে হবে। এই সরকার জনবান্ধব ও গণমুখী । সরকার সবসময় আপনাদের পাশে আছে। 

১২:৫৩ পিএম, ২৩ এপ্রিল ২০২০ বৃহস্পতিবার

কৃষকের ধান কেটে মাড়াই করে দিল স্বেচ্ছাসেবক লীগ

কৃষকের ধান কেটে মাড়াই করে দিল স্বেচ্ছাসেবক লীগ

শ্রমিক সংকট দূর করতে গাজীপুরে এবার কাঁচি হাতে মাঠে নেমেছেন জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের নেতাকর্মীরা। 

মাওনা এলাকায় কয়েকজন কৃষকের পাকা ধান কেটে মাড়াইও করে দেন তারা।  

স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি মোশারফ ভূঁইয়া বলেন, ক্ষেতে থাকা পাকা ধান নিয়ে কৃষকরা চরম বিপাকে পড়েছেন। তাদেরকে সহযোগিতা করার জন্যই জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের নেতাকর্মীরা মাঠে নেমেছেন।  

১২:৫০ পিএম, ২৩ এপ্রিল ২০২০ বৃহস্পতিবার

করোনায় বাংলাদেশে ১৪ সদস্যের টিম পাঠাচ্ছে ভারতীয় সেনাবাহিনী

করোনায় বাংলাদেশে ১৪ সদস্যের টিম পাঠাচ্ছে ভারতীয় সেনাবাহিনী

করোনাভাইরাস প্রতিরোধে সাহায্য করার জন্য বাংলাদেশসহ শ্রীলঙ্কা, ভূটান ও আফগানিস্তানে একটি করে টিম পাঠাতে প্রস্তুত ভারতের সেনাবাহিনী।   

মার্চ মাসে করোনাভাইরাস টেস্ট সেন্টার তৈরি ও স্থানীয় চিকিৎসকদের ভাইরাসের মোকাবিলায় প্রশিক্ষণ দেওয়ার জন্য নেপালে ১৪ সদস্যের দল পাঠিয়েছিল ভারতীয় সেনাবাহিনী। এছাড়া কুয়েতেও ১৫ সদস্যের দল পাঠিয়েছে ভারতীয় সেনা।  

ইতিমধ্যে ৫৫টি দেশে করোনার সম্ভাব্য ওষুধ হাইড্রক্সিক্লরোকুইন পাঠিয়েছে ভারত। বাংলাদেশ, নেপাল, মালদ্বীপ, শ্রীলঙ্কা, মায়ানমার, ভূটান, আফগানিস্তানের মতো দেশে এই ওষুধ সরবরাহ করেছে দেশটি।  

করোনা মোকাবিলায় সহায়তার জন্য বাংলাদেশে ১৪ সদস্যের একটি দল পাঠানোর প্রস্তুতি নিয়েছে ভারতীয় সেনা।

বন্ধু দেশগুলোর প্রতি পররাষ্ট্রনীতি অনুযায়ী ভারত এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এইসব দেশগুলোতে করোনা মোকাবিলায় মাঠে নেমে সহায়তা করবে ভারতীয় সেনার এই বিশেষ প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত টিম।

১২:৪৭ পিএম, ২৩ এপ্রিল ২০২০ বৃহস্পতিবার

নিজের হাতে মাস্ক বানালেন রাষ্ট্রপতির স্ত্রী

নিজের হাতে মাস্ক বানালেন রাষ্ট্রপতির স্ত্রী

কোভিড -১৯ -এর বিরুদ্ধে লড়াইয়ে সামিল হলেন ভারতের রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দের স্ত্রী সবিতা কোবিন্দও। সম্প্রতি রাষ্ট্রপতি ভবন শক্তি হাটে বসে নিজের হাতে বানান ঘরোয়া মাস্ক। পরে ওই মাস্ক বিতরণ করা হয় দিল্লির বিভিন্ন আশ্রয়কেন্দ্রে। সবিতা নিজেও পরেছিলেন লাল রঙের কাপড়ের তৈরি মাস্ক। খবর এনডিটিভির।

 

১২:৪৫ পিএম, ২৩ এপ্রিল ২০২০ বৃহস্পতিবার

ছুটিতে মন্ত্রণালয় ও বিভাগ খোলা রাখার সুপারিশ

ছুটিতে মন্ত্রণালয় ও বিভাগ খোলা রাখার সুপারিশ

করোনাভাইরাস প্রতিরোধের লক্ষ্যে সরকারি ছুটির দিনগুলোতে ১৮টি মন্ত্রণালয় ও বিভাগ খোলা রাখার সুপারিশ করেছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ। নিজ নিজ মন্ত্রণালয় ও বিভাগের গাড়িতেই যাতায়াত করতে হবে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের। তবে মন্ত্রণালয় ও বিভাগের সংখ্যা প্রয়োজন অনুযায়ী কমবেশি হতে পারে।

১২:৪২ পিএম, ২৩ এপ্রিল ২০২০ বৃহস্পতিবার

লকডাউন তুলে নিলে করোনা ফিরতে পারে ভয়াবহ রূপে: বিশ্ব স্বাস্থ্য

লকডাউন তুলে নিলে করোনা ফিরতে পারে ভয়াবহ রূপে: বিশ্ব স্বাস্থ্য

করোনাভাইরাস  মহামারী এখনো ভয়াবহ রুপে রয়েছে। লকডাউন তুলে নিলে তা আবার ভয়াবহ রুপে ছড়িয়ে পড়তে পারে। এ হুঁশিয়ারি দিয়েছেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান টেড্রোস আধানম ঘেব্রেইয়েসাস।

 

১২:৪০ পিএম, ২৩ এপ্রিল ২০২০ বৃহস্পতিবার

করোনাবিরোধী লড়াই
সম্পাদকীয়

করোনাবিরোধী লড়াই

করোনাভাইরাসবিরোধী লড়াই জোরদারে ৬৪ জন সচিবকে দেশের ৬৪টি জেলায় ত্রাণ, চিকিৎসাসহ এ-সংক্রান্ত কার্যক্রম সমন্বয়ের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। মরণঘাতী ভাইরাসের হাত থেকে দেশবাসীকে বাঁচাতে সরকার ইতিমধ্যে নানা কর্মসূচি নিয়েছে। দেশবাসীকে নির্দেশ দিয়েছে ঘরে থাকতে। কয়েক কোটি গরিব অভাবী মানুষের জন্য ত্রাণ তৎপরতা চালছে। জোরদার করা হয়েছে করোনা শনাক্তকরণ ও চিকিৎসাব্যবস্থা। কিন্তু সমন্বয়ের ত্রুটিতে বহু ক্ষেত্রে কাক্সিক্ষত ফল মিলছে না। এ বাস্তবতায় করোনাসংক্রান্ত সব কার্যক্রমের সমন্বয়ে প্রতি জেলায় একজন সচিব কাজ করবেন। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে ইতিমধ্যে তাদের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। প্রত্যেক জেলা প্রশাসক ও সিভিল সার্জনকে চিকিৎসক, নার্স ও স্বাস্থ্যকর্মীদের থাকা-খাওয়া, যাতায়াতসহ সব ধরনের সুবিধা নিশ্চিত করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। জেলা শহরের হোটেল ও আবাসিক ভবন রিকুইজিশন করতে বলা হয়েছে। চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীদের পিপিই, মাস্কসহ প্রয়োজনীয় সবকিছু সরবরাহ করতেও দেওয়া হয়েছে নির্দেশনা। সার্বিক পরিস্থিতি তদারকি করছে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়। কোথাও কোনো সমস্যা দেখা দিলে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সঙ্গে যোগাযোগ করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের নির্দেশনা পাওয়ার পর পরই জেলা শহরগুলোয় হোটেল রিকুইজিশনের কাজ শুরু করেছেন জেলা প্রশাসকরা। সিভিল সার্জনদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে চিকিৎসক, নার্স ও সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের পরিবহনের জন্য যানবাহন; রোগীদের জন্য অ্যাম্বুলেন্স; পর্যাপ্তসংখ্যক পিপিই, ওষুধ, ভেনটিলেটর ও লাশ পরিবহনের জন্য ব্যাগ প্রস্তুত রাখতে। সরকারের এ পদক্ষেপকে সব মহলে ইতিবাচক দৃষ্টিতে দেখা হচ্ছে। আশা করা হচ্ছে, সচিবরা প্রজাতন্ত্রের কর্মকর্তা হিসেবে নিরপেক্ষভাবে দায়িত্ব পালন করবেন। ত্রাণ তৎপরতার দুর্নীতি কঠোরভাবে সামাল দেবেন। করোনাবিরোধী যোদ্ধা চিকিৎসকদের সাহস জোগাতে তাদের সুরক্ষায় যা যা করণীয় সবকিছুই করবেন। করোনাবিরোধী লড়াইয়ে জয়ী হওয়ার জন্য সরকারের এ পদক্ষেপ সুফল দেবে- এমনটিই প্রত্যাশিত।

০১:২৯ পিএম, ২২ এপ্রিল ২০২০ বুধবার

এসএসসি ফল শেষে ১ মাসে ভর্তি, ঈদের পর এইচএসসি

এসএসসি ফল শেষে ১ মাসে ভর্তি, ঈদের পর এইচএসসি

রোনা ভাইরাস পরিস্থিতিতে স্বাভাবিক শিক্ষা কার্যক্রমে ব্যাঘাত ঘটায় এখন বিকল্প পথে এগোচ্ছে শিক্ষা মন্ত্রণালয় এবং প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়।

০১:২৫ পিএম, ২২ এপ্রিল ২০২০ বুধবার

দৈনিক খাগড়াছড়ি
বিবিধ বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর