• রোববার   ০৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ ||

  • মাঘ ২৩ ১৪২৯

  • || ১৩ রজব ১৪৪৪

দৈনিক খাগড়াছড়ি

প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘর পাচ্ছে অদম্য সৌরভ

দৈনিক খাগড়াছড়ি

প্রকাশিত: ২৪ জানুয়ারি ২০২৩  

সারাদিন ফ্লাস্কে করে চা বিক্রি করে সংসার চালানোর পাশাপাশি পড়ালেখায় ভালো ফল করা সেই সৌরভ প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘর পাচ্ছে। নাটোরের সিংড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) এম এম সামিরুল ইসলাম মঙ্গলবার সকালে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

নাটোরের সিংড়া পৌর শহরের বাস টার্মিনাল (মাদারীপুর) এলাকার বাসিন্দা শ্যামল শীল ও স্বপ্না শীলের ছেলে সৌরভ শীল। নিজেদের কোনও জায়গা-জমি না থাকায় তারা বাস করেন খাস জায়গায়। পাঁচ সদস্যের পরিবারে একমাত্র উপার্জনক্ষম ছিলেন সৌরভের বাবা। কিন্তু চার-পাঁচ বছর ধরে তিনি অসুস্থ। এ অবস্থায় সৌরভ পড়ালেখার পাশাপাশি হাতে তুলে নেয় বাবার চা বিক্রির ফ্লাস্ক। স্কুল শেষে বিক্রি করে চা। আর ওই চা বিক্রির জন্য ছুটে বেড়ায় বাস টার্মিনালসহ বিভিন্ন জায়গায়। আবার চা বিক্রি শেষে বাড়ি ফিরেই পড়তে বসতো। অবশেষে গত এসএসসির ফলাফলে সৌরভ অর্জন করে জিপিএ ৫। সৌরভ পড়ালেখায় অত্যন্ত মনোযোগী হওয়ায় শতকষ্টেও বাবা-মা বন্ধ করেননি তার পড়ালেখা।

সৌরভের সংগ্রামী জীবনের কথা জানাজানি হলে বিস্ময় ফুটে ওঠে স্থানীয়দের চোখে-মুখে। এক পর্যায়ে সংবাদটি পৌঁছে যায় আইসিটি প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট জুনাইদ আহমেদ পলকের কাছে। তিনি খুশি হয়ে সৌরভকে উপহার দেন ল্যাপটপ। নিজে দায়িত্ব নেন তার পড়ালেখার। পাশাপাশি তার পরিবারের অসহায়ত্বের কথা শুনে প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘরের ব্যবস্থাও করেন।

সিংড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জানান,ওই ঘর নির্মাণের জন্য সৌরভের বাড়ির পাশেই জমি নির্বাচনের জন্য সোমবার বিকালে তারা গিয়েছিলেন। পছন্দ করা জমিটির বিষয়ে খোঁজ নিতে উপজেলা ভূমি কর্মকর্তাসহ সংশ্লিষ্টদের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। দুই-একদিনের মধ্যেই ওই তথ্য পেলে ঘর নির্মাণের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এ বিষয়ে সন্তোষ প্রকাশ করে সৌরভ জানান, সে সিংড়া দমদমা পাইলট স্কুল অ্যান্ড কলেজ থেকে ২০২২ সালের এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নিয়ে এ প্লাস পেয়েছে। ভবিষ্যতেও পড়ালেখা চালিয়ে যেতে চায়। পরিবারের জন্য ঘর নির্মাণের ব্যবস্থা করায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, আইসিটি প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট জুনাইদ আহমেদ পলক, উপজেলা প্রশাসনসহ সংশ্লিষ্ট সবার প্রতি সৌরভ কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছে।

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখে পাঠাতে পারেন আমাদের। এছাড়া যেকোনো সংবাদ বা অভিযোগ লিখে পাঠান এই ইমেইলেঃ [email protected]