• রোববার   ০৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ ||

  • মাঘ ২৩ ১৪২৯

  • || ১৩ রজব ১৪৪৪

দৈনিক খাগড়াছড়ি

বিলাইছড়ি জোনের উদ্যোগে কৃতি শিক্ষার্থী ও শিক্ষকদের সংবর্ধনা

দৈনিক খাগড়াছড়ি

প্রকাশিত: ৩১ ডিসেম্বর ২০২২  

ছবি- দৈনিক খাগড়াছড়ি।

ছবি- দৈনিক খাগড়াছড়ি।

রাঙামাটি জেলার বিলাইছড়ি উপজেলার অন্তর্গত বিলাইছড়ি সদর, কেংড়াছড়ি এবং ফারুয়া ইউনিয়নের সকল প্রাথমিক, নিম্ন মাধ্যমিক এবং উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের কৃতি শিক্ষার্থী এবং প্রতি বিদ্যালয়ের একজন করে শ্রেষ্ঠ শিক্ষকদের নিয়ে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর বিলাইছড়ি জোন। 

প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিলাইছড়ি জোনের জোন কমান্ডার লেঃ কর্ণেল মোঃ আহসান হাবিব রাজীব। অনুষ্ঠানে অন্যান্য অতিথিদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বিলাইছড়ি উপজেলা চেয়ারম্যান, উপজেলা শিক্ষা অফিসার, উপজেলার সকল প্রতিনিধিবৃন্দ, প্রতি ইউনিয়নের সকল চেয়ারম্যান, মেম্বার সহ সকল কৃতি শিক্ষার্থীদের অভিভাবকবৃন্দ এবং স্থানীয় নেতৃস্থানীয় ব্যক্তিবর্গ।

বিলাইছড়ি জোন কর্তৃক আয়োজিত কৃতি শিক্ষার্থী এবং শ্রেষ্ঠ শিক্ষকদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে কৃতিত্বের সাথে সফলতা অর্জন করায় ২৬০ জন শিক্ষার্থীদের মাঝে মেডেল ও সার্টিফিকেট এবং ৫২ জন শ্রেষ্ঠ শিক্ষকদের মাঝে ক্রেস্ট ও সার্টিফিকেট প্রদান করা হয়।

দূর্গম জনপদে নানা সীমাবদ্ধতায় থাকা শিক্ষার্থীদেরকে দেশের আদর্শ সন্তান হিসাবে গড়ে তোলার লক্ষে বিলাইছড়ি জোন ধারাবাহিকভাবে তাদের পাশে থেকে বিভিন্ন সময়ে সহযোগীতার হাত বাড়িয়েছে এবং শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের উন্নয়মূলক কাজে পাশে দাড়িয়েছে। 

অনুষ্ঠানে উপস্থিত উপজেলা চেয়ারম্যান বীরোত্তম তঞ্চঙ্গা বিলাইছড়ি জোনকে, উপজেলার শিক্ষাব্যবস্থার উন্নয়নে কাজ করার জন্য ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন এবং ভবিষ্যতেও শিক্ষার্থীদের উদ্বুদ্ধকরণের এই মহতী উদ্যোগ জারি রাখার অনুরোধ জানান। 

জোন অধিনায়ক সকল শিক্ষার্থীদের কৃতিত্বের সাথে ভালো ফলাফল অর্জন করায় অভিনন্দন জানান। তিনি বলেন “শিক্ষাই উন্নয়নের একমাত্র মাধ্যম। প্রকৃত শিক্ষা অর্জনের মাধ্যমে আত্নমুক্তি ও দেশ সেবায় নিজেকে নিয়োজিত করে প্রতিটি শিক্ষার্থীদেরকে অধ্যবসায় এর মাধ্যমে শিক্ষিত হয়ে মানব সম্পদে পরিনত হতে হবে”। সর্বোপরি তিনি শিক্ষার প্রসারে বঙ্গবন্ধুর অবদান এবং তারই ধারাবাহিকতায় সেনাবাহিনীর পদক্ষেপসমূহ তুলে ধরেন এবং এই অগ্রযাত্রায় সেনাবাহিনীর সকল প্রকার সহযোগীতার প্রতিশ্রুতি দেন তিনি। 

অনুষ্ঠানে আগত প্রধান শিক্ষকগণ এই উদ্যোগকে পরবর্তী প্রজন্মের ছাত্রছাত্রীদের জন্য 'অনুকরণীয় আদর্শ হিসেবে আখ্যায়িত করেন। ২০২২ শিক্ষাবর্ষে যারা এই স্বারক গ্রহণ করতে পারেনি তারা আগামী শিক্ষাবর্ষে যথেষ্ট প্রতিযোগীতামূলক মনোভাবে এবং দেশ গড়ার প্রত্যয়ে এগিয়ে যেতে পারবে। সকল শিক্ষার্থী বিলাইছড়ি জোন কর্তৃক এই বিশেষ সম্মাননা পেয়ে ভবিষ্যতেও তাদের এই কৃতিত্বপূর্ণ ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে বদ্ধ পরিকর। সংবর্ধনা প্রদান এবং মধ্যান্যভোজের মধ্য দিয়ে জাকজমকপূর্ণভাবে শেষ হয় কৃতি শিক্ষার্থী এবং শেষ্ঠ শিক্ষকদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠান।

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখে পাঠাতে পারেন আমাদের। এছাড়া যেকোনো সংবাদ বা অভিযোগ লিখে পাঠান এই ইমেইলেঃ [email protected]