• বুধবার   ১৯ জানুয়ারি ২০২২ ||

  • মাঘ ৭ ১৪২৮

  • || ১৫ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

দৈনিক খাগড়াছড়ি

বান্দরবানে প্রথমবার চেয়ারম্যান পদে লড়ছেন স্নাতকপড়ুয়া মাশৈখিং

দৈনিক খাগড়াছড়ি

প্রকাশিত: ২৭ নভেম্বর ২০২১  

ছবি- সংগৃহীত।

ছবি- সংগৃহীত।

 

বান্দরবানের রোয়াংছড়ি উপজেলায় স্বাধীনতার পর এবারই প্রথম ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে মাশৈখিং মারমা নামে প্রথম কোনো নারী চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হচ্ছেন। এরমধ্যে তিনি নির্বাচন কমিশন কার্যালয়ে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন।

মাশৈখিং মারমা জেলার রোয়াংছড়ি উপজেলার ৩ নম্বর আলেক্ষ্যং ইউপি নির্বাচনে অংশগ্রহণ করছেন।
 
জানা গেছে, উপজেলায় প্রথমবারের মতো নারী চেয়ারম্যান প্রার্থী হওয়ায় মাশৈখিং মারমার নির্বাচনী এলাকায় ভিন্নমাত্রার আমেজ সৃষ্টি হয়েছে। তার নির্বাচনী এলাকা ঘুরে দেখা যায়, সাধারণ ভোটাররা বেশ গুরুত্ব দিয়েই দেখছে নারী নেতৃত্বের বিষয়টি। জেলাতেও এ নিয়ে আলোচনা হচ্ছে।

মাশৈখিং মারমা রোয়াংছড়ি উপজেলার ৩ নম্বর আলেক্ষ্যং ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ড আমতলীপাড়ার বাসিন্দা সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান পুহ্লাঅং মারমার মেয়ে। তিনি বর্তমানে স্নাতক শ্রেণিতে অধ্যয়নরত। তিনি ২০১২ সালে এসএসসি এবং ২০১৭ সালে এইচএসসি পাস করেন। স্নাতক শ্রেণিতে অধ্যয়নরত থাকলেও বর্তমানে বেসরকারি একটি স্কুলে শিক্ষকতা করছেন।

মাশৈখিং মারমা বলেন, রোয়াংছড়ি উপজেলার ৩ নম্বর আলেক্ষ্যং ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হয়েছি। শেষ পর্যন্ত নির্বাচনে লড়ে যাওয়ার জন্য মাঠে নেমেছি। আমি জনসেবা করতে চাই। জনগণের পাশে থেকে প্রতিনিধি হিসেবে না হয়ে একজন সেবিকা হিসেবে কাজ করতে চাই।

বিজয়ী হলে জনগণের জন্য কী করবেন-জানতে চাইলে মাশৈখিং মারমা বলেন, ইউপি বাসিন্দাদের নাগরিক সুবিধা প্রাপ্তি সহজতর করাই আমার প্রধান প্রতিশ্রুতি। সরকারের সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনী সুবিধাসহ যাবতীয় নাগরিক সুবিধা পেতে যেন কোনো হয়রানির শিকার হতে না হয়, সেটা নিশ্চিতের চেষ্টা করব। এছাড়া বেকারত্ব দূরীকরণসহ উন্নয়ন কর্মকাণ্ড তরান্বিত করতে দায়িত্ব নিয়ে কাজ করব। ভোটারদের কাছ থেকে আশানুরূপ সাড়া পাচ্ছি। সবার দোয়া চাই।

মাশৈখিং আরও বলেন, ছোট থেকেই রাজনৈতিক পরিবেশে বড় হয়েছি। তবে কোনো রাজনৈতিক দলের সঙ্গে আমার সম্পৃক্ততা নেই। তারপরও আশা করছি, আমি আসন্ন ইউপি নির্বাচনে আলেক্ষ্যং ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে জয়ী হতে পারব।

উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা পরান্টু চাকমা বলেন, চতুর্থ ধাপের ইউপি নির্বাচনে তফসিল অনুযায়ী ২৫ নভেম্বর ফরম জমাদানের শেষ দিন ছিল। ২৯ নভেম্বর মনোনয়ন বাছাই, ৩০ নভেম্বর থেকে ২ ডিসেম্বর আপিল, ৬ ডিসেম্বর প্রার্থিতা প্রত্যাহার এবং ৭ ডিসেম্বর প্রতীক বরাদ্দ ও ২৩ ডিসেম্বর ভোটগ্রহণ হবে। একই সময় জেলার থানচি উপজেলার ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখে পাঠাতে পারেন আমাদের। এছাড়া যেকোনো সংবাদ বা অভিযোগ লিখে পাঠান এই ইমেইলেঃ [email protected]