• সোমবার   ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১ ||

  • আশ্বিন ৫ ১৪২৮

  • || ১১ সফর ১৪৪৩

দৈনিক খাগড়াছড়ি

দীঘিনালায় পেঁপের বাম্পার ফলন

দৈনিক খাগড়াছড়ি

প্রকাশিত: ২০ আগস্ট ২০২১  

ছবি- নিজস্ব প্রতিবেদক।

ছবি- নিজস্ব প্রতিবেদক।

খাগড়াছড়ির দীঘিনালায় পেঁপের বাম্পার ফলন হয়েছে এ বছর। এতে লাভবান হওয়ায় অন্যান্য ফসলের সঙ্গে চাষের এলাকা বাড়িয়েছেন কৃষকেরা। এ বছর উপজেলায় প্রায় ৩০ হেক্টর জায়গায় পেঁপে চাষ হয়েছে।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা ওমঙ্কার বিশ্বাস জানান, আগের তুলনায় উপজেলায় পেঁপের চাষ ব্যাপক বেড়েছে। এ বছর ৩০ হেক্টর জায়গায় পেঁপের আবাদ করা হয়েছে। এর মধ্যে রেড-লেডি জাতের পেঁপেই বেশি। পেঁপে চাষ অত্যন্ত লাভজনক চাষ। ঠিকমতো পরিচর্যা করতে পারলে কৃষকেরা স্বাবলম্বী হতে পারেন।

উপজেলার মেরুং ইউনিয়নের জামতলী–ভৈরফা এলাকার কৃষক মো. আজিজুল এ বছর ১ হেক্টর জমিতে পেঁপেগাছ লাগিয়েছেন। ফলন হয়েছেও আশানুরূপ। ৩টি বাগানের ১ হাজার ৮০০ গাছ থেকে প্রথমবার ৩০ হাজার টাকার পেঁপে বিক্রয় করেন। দ্বিতীয়বার পেঁপে বিক্রয় করেছেন প্রায় ১ লাখ টাকা।

গত মঙ্গলবার ইউনিয়নের নয়াপাড়া এলাকায় গিয়ে দেখা যায়, আজিজুলের বাগান থেকে পেঁপে ‍তুলে মিনি ট্রাক লোড করছেন ১০ শ্রমিক। এ সময় ২ মেট্রিক টন পাকা পেঁপে তোলা হয়। শ্রমিকেরা জানান, ফেনীতে ৫০ টাকা পাইকারি দরে পেঁপে বিক্রয় করা হয়েছে। আজিজুল জানান, আবহাওয়া অনুকূলে থাকলে এক হাজার ৮০০ পেঁপেগাছ থেকে এ বছর ৮ লাখ টাকারও বেশি পেঁপে বিক্রয় করা যাবে।

ওমঙ্কার বিশ্বাস জানান, চাষের সময় গোড়া পচা, পোকাবাহিত বিভিন্ন রোগ এবং ক্ষতিকারক ভাইরাস থেকে পেঁপেগাছকে মুক্ত রাখতে হবে। পেঁপে চাষের সুবিধা হলো, একবার পেঁপেগাছ লাগালে ৩ বছর ফলন পাওয়া সম্ভব হয়। এ ক্ষেত্রে প্রথম বছরের পর পরবর্তী দুই বছর খেত পরিচর্যার খরচ খুবই কম লাগে। 

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখে পাঠাতে পারেন আমাদের। এছাড়া যেকোনো সংবাদ বা অভিযোগ লিখে পাঠান এই ইমেইলেঃ [email protected]