• বৃহস্পতিবার   ০৪ মার্চ ২০২১ ||

  • ফাল্গুন ২০ ১৪২৭

  • || ১৯ রজব ১৪৪২

দৈনিক খাগড়াছড়ি

রাজশাহীর পর্যটনে যুক্ত হলো দৃষ্টিনন্দন দুই ঝুলন্ত ব্রিজ

দৈনিক খাগড়াছড়ি

প্রকাশিত: ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২১  

রাজশাহীতে একের পর এক পর্যটন স্পট বাড়ছেই। সেই দিন আর দূরে নেই যেদিন-শিক্ষা নগরী ও রেশম নগরীর পাশাপাশি পর্যটন নগরীর খেতাবও পাবে পদ্মাপাড়ের এই বিভাগীয় শহর রাজশাহী। রাজশাহীর প্রধানতম পর্যটন এলাকা পদ্মাপাড়। বিনোদনের অন্যতম এ এলাকাটি আরও আকর্ষণীয় ও দৃষ্টিনন্দন করতে পদ্মাপাড়কে ঘিরে নানাবিধ পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে সিটি করপোরেশন। 

এরই অংশ হিসেবে হযরত শাহ মখদুম (রহ.) মাজার সংলগ্ন এলাকায় একটি ও পদ্মা গার্ডেন সংলগ্ন এলাকায় অপর একটি ঝুলন্তু ওভারব্রিজ নির্মাণ করা হয়েছে। 

ব্রিজের সৌন্দর্যবর্ধনে করা হয়েছে নান্দনিক গ্রাফিটি। রং আর তুলির আঁচড়ে ওভারব্রিজ দুটিকে ফুটিয়ে তোলা হয়েছে নান্দনিকভাবে। এর অপরূপ সৌন্দর্যের কারণে পদ্মাপাড়ে গিয়ে সেখানে বসলে বা সকালে হাঁটলে যে কারও মন ও প্রাণ জুড়িয়ে যাবে। 

 

শনিবার বিকেলে হযরত শাহ মখদুম (রহ.) মাজার সংলগ্ন ফলক উন্মোচনের মাধ্যমে রাজশাহী সিটি মেয়র এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটন দৃষ্টিনন্দন ওভারব্রিজ দুটির আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন। এরপর সেখানে দোয়া ও মোনাজাত করা হয়। উদ্বোধন শেষে পরিদর্শন করেন মেয়র খায়রুজ্জামান লিটন। 

ব্রিজ দুইটি উদ্বোধনের মাধ্যমে বিনোদনপ্রেমীদের চলাচল ও বিনোদনের জন্য খুলে গেলো নতুন পর্যটন স্পট। ব্রিজ দুইটির জন্য পদ্মাপাড় ধরে মুন্নুজান স্কুল থেকে লালনশাহ পার্ক পর্যন্ত পায়ে হেঁটে যাতায়াতের পর আরও সুগম হবে।

রাসিকের উপ-সহকারী প্রকৌশলী সজীবুর রহমান জানান, শাহ মখদুম মাজারের কাছে নির্মিত ওভার ব্রিজটিতে ১৮টি পাইলিং করা হয়েছে। এটির স্প্যান ১৮ মিটার। রয়েছে চার মিটারের ৬টি পিলার। ব্রিজটির সৌন্দর্যবর্ধনে ওয়ারক্যাবল সংযোজন করা হয়েছে। ব্রিজটির সৌন্দর্যবর্ধনের কাজটি করছেন মামুন আর্টস অ্যান্ড ইন্টেরিয়ার এর প্রোপাইটার মামুন আলী। পদ্মা গার্ডেন সংলগ্ন ওভারব্রিজটিতে ১২টি পাইলিং করা হয়েছে। এটির স্প্যান ১২ মিটার। ওভারব্রিজ দুটিতে র‌্যাম নির্মাণ করা হয়েছে। ব্রিজ দুটিতে ব্যয় হয়েছে ৯৮ লাখ ১৫ হাজার ৪৫১ টাকা। এটিতে দুটি আর্চ করা হয়েছে। পাইলিং, এ্যাবাটমেন্ট ও উয়িং ওয়ালের ওপর নির্মাণ কাজ করা হয়েছে।  

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে রাসিক মেয়র খায়রুজ্জামান লিটন সাংবাদিকদের বলেন, ইউরোপ, আমেরিকাসহ বিশ্বের উন্নত দেশের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানসহ বিভিন্ন ভবনের দেয়ালে, বিনোদনকেন্দ্রে গ্রাফিটি করা থাকে, আমি দেখেছি। রাজশাহী মহানগরীর সৌন্দর্যবর্ধনে সিটি কর্পোরেশনের অর্থায়নে মহানগরীর প্রায় শতাধিক স্থানে গ্রাফিটি করা হচ্ছে।

সৌন্দর্যবর্ধনের জন্য আজকে উদ্বোধন করা দুইটি ওভারব্রিজেও গ্রাফিটি করা হয়েছে। এর মাধ্যমে শহরের সৌন্দর্য আরো বাড়বে। পদ্মাপাড়কে ঘিরে আরও অনেক পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। ধাপে ধাপে এসব পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করা হবে।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বীর মুক্তিযোদ্ধা প্রফেসর রুহুল আমিন প্রামাণিক, কবি আরিফুল হক কুমার, রাজশাহী সিটি করপোরেশনের তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী নূর ইসলাম তুষার, সহকারী প্রকৌশলী সুব্রত কুমার ঘোষ ও উপ-সহকারী প্রকৌশলী সজীবুর রহমানসহ স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।