• মঙ্গলবার   ২৬ জানুয়ারি ২০২১ ||

  • মাঘ ১৩ ১৪২৭

  • || ১১ জমাদিউস সানি ১৪৪২

দৈনিক খাগড়াছড়ি
১১৩

যুদ্ধাপরাধী সাকা চৌধুরীর ফাঁসির পরও বদলা চেয়েছিল মাওলানা মামুনুল

দৈনিক খাগড়াছড়ি

প্রকাশিত: ২২ নভেম্বর ২০২০  

ছবি- সংগৃহীত।

ছবি- সংগৃহীত।

 

১৯৭১-এর মুক্তিযুদ্ধের সময় মানবতাবিরোধী ঘৃণ্য অপরাধের দায়ে আন্তর্জাতিক অপরাধ দমন ট্রাইবুনালে দণ্ডিত সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরীর ফাঁসির পর প্রতিশোধের হুংকার দিয়েছিল যারা, তাদের মধ্যে অন্যতম একজন এই মাওলানা মুহাম্মদ মামুনুল হক। ২০১৫ সালের ২২ নভেম্বর সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টায় তার ভেরিফাইড ফেসবুক পেজ থেকে এরকম একটি পোস্ট দেন তিনি। পোস্টটিতে দেখা যায়, প্রথমে সাল্লাউদ্দিন কাদের চৌধুরীর ছেলে ও ভাই যথাক্রমে হুম্মাম কাদের ও জামাল উদ্দিন কাদেরের বরাত দিয়ে সংবাদ পরিবেশন স্টাইলে তিনি তাদের সংবাদ সম্মেলনে খবরটি জানিয়ে দেন। সেখানে ভবিষ্যতে এই ঘটনার বদলা নেওয়া কথা উঠে আসে। 

সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরীর ছেলের প্রতি সমর্থন জানিয়ে পোস্টের শেষাংশে নিজেও তেমন সময়ের প্রতীক্ষায় আছেন বলে লিখেছেন মামুনুল। তিনি বলেন, 'সাবাস, ফজলুল কাদের ও সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরীর উত্তরসূরী। আমরাও রইলাম সেই সুদিনের প্রত্যাশায়।'

প্রসঙ্গত, মুক্তিযুদ্ধের সময় স্বাধীনতার বিরোধিতাকারী মাওলানা আজিজুল হকের ছোট ছেলে খেলাফতে মজলিশের মহাসচিব এই মাওলানা মামুনুল হক। তিনি এবার হেফাজতের বিতর্কিত কমিটিতে যুগ্ম-মহাসচিবের পদ পেয়েছেন। দীর্ঘদিন থেকে বেআইনিভাবে ঢাকার সাতমসজিদ রোডে অবস্থিত জামি’আ রহমানিয়া আরাবিয়া কওমি মাদ্রাসাটি দখল করে রেখেছেন তিনি। তার স্ত্রী শিবির করতেন এবং তিনি নিজেও দীর্ঘদিন থেকে জামায়াত-শিবিরকে সঙ্গে নিয়ে হেফাজতে ইসলামের মধ্যে প্রভাব বিস্তার করতে চেষ্টা চালাচ্ছেন। সম্প্রতি বঙ্গবঙ্ধুর ভাস্কর্য স্থাপনে বিরোধিতা করার ঔদ্ধত্য দেখিয়েছেন তিনি। এর আগেও, ইসলামের অপব্যবহার করে তার বিরুদ্ধে যুব সমাজকে উস্কে দেওয়ার অভিযোগ রয়েছে।

সারাদেশ বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর